HomeপলিটেকনিকChittagong Polytechnic Institute | চট্টগ্রাম পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট

Chittagong Polytechnic Institute | চট্টগ্রাম পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট

Author

Date

Category

- Advertisement -

Chittagong Polytechnic Institute / চট্টগ্রাম পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট বাংলাদেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট। ৫০ বছরেরও বেশি সময় ধরে প্রকৌশল ও প্রযুক্তি ক্ষেত্রে অন্যতম শ্রেষ্ঠ পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে।

বছরের পর বছর ধরে এই প্রতিষ্ঠান কারিগরি শিক্ষাদান এবং গবেষণায় এর শ্রেষ্ঠত্ব এবং উজ্জ্বলতা ধরে রেখেছে। চট্টগ্রাম পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট শিক্ষার্থীদের বুদ্ধি এবং দক্ষতার সীমানা ছাড়িয়ে জাতীয় উন্নয়নের পথে এগিয়ে নিতে নিষ্ঠা এবং প্রতিশ্রুতিবদ্ধতা নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে। বর্তমানে এই প্রতিষ্ঠানের প্রিন্সিপাল হিসেবে দায়িত্বরত আছেন ইঞ্জিনিয়ার মোঃ আব্দুর রহমান। তবে বাংলাদেশ সরকারের শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তর কেন্দ্রীয়ভাবে এই প্রতিষ্ঠানটি পরিচালনা করে।

ইতিহাস

Chittagong Polytechnic Institute প্রতিষ্ঠা হয়েছিল স্বাধীনতার পূর্বে ১৯৬২ সালে। প্রতিষ্ঠাকাল থেকেই প্রতিষ্ঠানটিতে সাতটি কোর্সে পাঠদান হয়ে আসছে। বর্তমানে এখানে প্রায় ৪ হাজারের মতো শিক্ষার্থী রয়েছে।

অবস্থান এবং যোগাযোগ

চট্টগ্রাম পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট প্রতিষ্ঠানটি চট্টগ্রামের নাসিরাবাদে অবস্থিত। এর পূর্ণ ঠিকানা নিচে দেয়া হল-

  • চট্টগ্রাম পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট
  • পলিটেকনিক রোড, নাসিরাবাদ, চট্টগ্রাম-৪২০৯
  • Contact – +88-031-62534
  • Fax+88-031-62534
  • Website : https://www.ctgpoly.gov.bd
  • E-mail : info@ctgpoly.gov.bd

Chittagong Polytechnic Institute / চট্টগ্রাম পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট

ক্যাম্পাস

chittagong polytechnic institute
Chittagong polytechnic institute

চট্টগ্রাম পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের মূল ক্যাম্পাসটি ২০ একর জমিতে বিস্তৃত। তিনতলা বিশিষ্ট মূল একাডেমিক ভবন ছাড়াও রয়েছে খেলার মাঠ, শিক্ষার্থীদের আবাসিক হল, শিক্ষক এবং স্টাফদের জন্য কোয়ার্টার, দোতলা একটি কম্পিউটার এবং ইলেক্ট্রো – মেডিক্যাল বিল্ডিং, বড় একটি বাগান, মসজিদ, একটি শহীদ মিনার, একটি সাব-পোস্ট অফিস। আবাসিক এরিয়াটি বিভিন্ন রকমের গাছপালা দিয়ে ঘেরা।

ল্যাব

এর ল্যাবগুলো আধুনিক ল্যাব ইকুইপমেন্ট এবং দক্ষ ইন্সট্রাকটর দ্বারা সমৃদ্ধ। এখানে বিভিন্ন কোর্সের জন্য আলাদা আলাদা ল্যাব রয়েছে যেমন- ব্যাসিক ইলেকট্রনিক্স ল্যাব, এডভান্স ইলেকট্রনিক্স ল্যাব, ক্যামিস্ট্রি ল্যাব, ফিজিক্স ল্যাব এবং চারটি কম্পিউটা্র ল্যাব।

ওয়ার্কশপ

হাটে কলমে শিখার জন্য রয়েছে বেশ কিছু ওয়ার্কশপ। তাদের মধ্যে আছে ব্যাসিক ওয়ার্কশপ, উড ওয়ার্কশপ, পাওয়ার ওয়ার্কশপ, মেটাল ওয়ার্কশপ।

আবাসিক হল

chittagong polytechnic institute
Chittagong polytechnic institute

ক্যাম্পাসে দুরবর্তী এলাকার শিক্ষার্থীদের থাকার সুবিধার জন্য বেশ কিছু আবাসিক হল রয়েছে। আবাসিক হলগুলোর মধ্য পাঁচটি ছেলেদের, মেয়েদের একটি হল আছে। এছাড়া শিক্ষক এবং স্টাফদের জন্যও আলাদা আলাদা কোয়ার্টার আছে।

ডিপার্টমেন্ট

মোট সাতটি টেকনিকে ডিপ্লোমা কোর্সে চালু আছে। এগুলো হল-

  • ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং (১০০)
  • ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং (১০০)
  • পাওয়ার ইঞ্জিনিয়ারিং (১০০)
  • কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং (১০০)
  • এনভাইরনমেন্ট ইঞ্জিনিয়ারিং (৫০)
  • সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং (১০০)
  • মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং (১০০)

এছাড়া সব ডিপার্টমেন্টের আবশ্যিক কিছু বিষয় যেমন- বাংলা, ইংরেজি, গনিত, পদার্থবিজ্ঞান প্রভৃতি পাঠদানের জন্য রয়েছে নন-টেক ডিপার্টমেন্ট।

কোর্সের ধরন ও সময়কাল

এখানে ডিপ্লোমা কোর্সগুলো চার বছর মেয়াদি আটটি সেমিস্টার নিয়ে গঠিত। একাডেমিক কোর্স পরিচালিত হয় ক্রেডিট সিস্টেমের উপর ভিত্তি করে। শেষ সেমিস্টারে ইন্ডাস্ট্রিয়াল ট্রেনিং হয়ে থাকে। এ সেমিস্টারে প্রায় ছয় মাস সময়ে একজন শিক্ষার্থী তার কোর্সে প্রয়োজনীয় পেশাগত জ্ঞান লাভ করে থাকে।

ভর্তির যোগ্যতা

এসএসসি, দাখিল, ভোকেশনাল অথবা সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরা চট্রগ্রাম পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে মেধা তালিকা অনুসারে ভর্তি হতে পারবে। তবে আবেদনের যোগ্যতার ক্ষেত্রে উক্ত পরীক্ষায় নূন্যতম জিপিএ ৩.৫ পেতে হবে এবং ম্যাথ, ক্যামেস্ট্রি, ফিজিক্স ও ইংরেজিতে কমপক্ষে জিপিএ ৩ থাকতে হবে। প্রতি বছর ভর্তি সংক্রান্ত নীতিমালা পরিবর্তন হয় যা BTEB ওয়েবসাইটে ভর্তির সার্কুলারে বিস্তারিত দেয়া থাকে।

খরচ

সরকারি প্রতিষ্ঠান বিধায় Chittagong Polytechnic Institute-এ খরচ অন্যান্য পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের তুলনায় কম।

কোটা

এখানে প্রতিটি ডিপার্টমেন্টে আসন সংখ্যার ২০% মহিলা কোটা, ১৫% ভোকেশনাল এবং ৫% প্রতিবন্ধীদের জন্য সংরক্ষিত। তবে যেহেতু প্রতিষ্ঠানটি কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে পরিচালিত হয়, তাই এই সংক্রান্ত কোন ধরনের আপডেট সংশ্লিষ্ট ওয়েবসাইটে ভর্তির নীতিমালা সংক্রান্ত নোটিশে পাওয়া যাবে।

কোর্সের সময়সীমা

  • ডিপ্লোমা ইন ইঞ্জিনিয়ার কোর্স চার বছরে হয়ে থাকে।
  • এছাড়া বিভিন্ন ট্রেড কোর্স ও রয়েছে যেগুলো কারিগরী শিক্ষা বোর্ড থেকে কন্ট্রোল করা হয়। এগুলোকে শর্ট কোর্স ও বলা হয়ে থাকে।

ক্লাসের সময়সূচী

চট্টগ্রাম পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট- এ ক্লাস হয় দুই শিফটে।

  • প্রথম শিফটে ক্লাস হয় সকাল ৮ টা থেকে দুপুর ২ টা পর্যন্ত।
  • দ্বিতীয় শিফটে ক্লাস হয় দুপুর ২টা থেকে বিকেল ৬টা পর্যন্ত।

শিক্ষা ব্যবস্থা

এখানে মোট শিক্ষাবর্ষ আটটি সেমিস্টার নিয়ে গঠিত। একাডেমিক কোর্স পরিচালিত হয় ক্রেডিট সিস্টেমের উপর ভিত্তি করে।

স্কলারশীপ

এই প্রতিষ্ঠানে প্রতি সেমিস্টারে ৬৫% শিক্ষার্থীরা মেধার ভিত্তিতে সরকারি স্কলারশীপ পেয়ে থাকে এবং ইন্ডাস্ট্রিয়াল ট্রেনিং চলাকালে প্রত্যেক শিক্ষার্থী ভাতা পায়। এছাড়া ওয়ার্ল্ড ব্যাংকের অর্থায়নে বেশ কিছু শিক্ষার্থী বৃত্তি পেয়ে থাকে।

ছাত্র সংগঠন

শিক্ষার্থীদের কো-কারিকুলার কার্যক্রমের অংশ হিসেবে রয়েছে বিভিন্ন রাজনৈতিক এবং সাংস্কৃতিক সংগঠন। এছাড়া রোভার স্কাউটের একটি গ্রুপ আছে এই ক্যাম্পাসে।

ঢাকা পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট সম্পর্কে জানতে পড়ুন

ট্যাগসমূহঃ চট্টগ্রাম পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট, chittagong polytechnic institute admission 2019, চট্টগ্রাম পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট ভর্তি, chittagong polytechnic institute all subject, chattogram polytechnic institute chittagong

- Advertisement -src="https://pagead2.googlesyndication.com/pagead/js/adsbygoogle.js">
780FansLike

Recent posts

error: Content is protected !!