কম জিপিএ নিয়ে সরকারি পলিটেকনিকে চান্স পাওয়ার কিছু কৌশল

এস এস সি / সমমান পাশ করার পর অনেকেই পলিটেকনিকে ভর্তি হবার জন্য আগ্রহ প্রকাশ করে থাকেন। ইতিমধ্যে আপনারা সকলেই জানেন যে পলিটেকনিকে ভর্তি হবার জন্য কিছু নিয়মের ভিতর দিয়ে যেতে হয়। প্রতিবছর কারিগরি শিক্ষা বোর্ড ভর্তির জন্য নীতিমালা প্রকাশ করে থাকে যা অনুসরন করতে হয়। ২০১৯ সালের নীতিমালা ও বেশ কিছু পরিবর্তন আছে।

নীতিমালা অনুযায়ী সবকিছু মিলিয়ে পলিটেকনিকে ভর্তির জন্য আপনাকে অনলাইনে আবেদন করতে হবে। এখানে ভর্তি পরীক্ষার কোন সিস্টেম নেই। আপনার এস এস সি জিপিএ অনুযায়ী আপনি চান্স পাবেন। এক্ষেত্রে আপনি এক বা একাদিক প্রতিষ্ঠানে সর্বোচ্চ ১০ টি টেকনোলজিতে আবেদন করতে পারবেন। প্রথম শিফট এবং দ্বিতীয় শিফট উভয় ক্ষেত্রে ২০ টি প্রতিষ্ঠানের টেকনোলজিতে আবেদন করতে পারবেন।

বলে নেয়া ভাল, এস এস সি তে ভাল রেজাল্টের পাশাপাশি পলিটেকনিকের ভর্তি প্রতিযোগিতা দিনে দিনে ব্যাপক হারে বেড়েই চলছে। আপনার রেজাল্ট যদি খারাপ হয় তাহলে আপনাকে খুব সাবধানে পলিটেকনিক চয়েজ করে আবেদন করতে হবে। আমরা অনেকেই না বুঝে অনালাইনে আবদনের জন্য সরাসরি কম্পিউটার দোকানে যেয়ে অপারেটরকে বলি আবেদন করে দিতে। আর কম্পিউটার অপারেটর হয়তো বুঝে বা না বুঝে নিজের ইচ্ছা অনুযায়ী বিভিন্ন পলিটেকনিকে চয়েজ করে আবেদন করে দেয় যেটা আপনার জীবনের জন্য প্রশ্ন হয়ে দাড়াতে পারে!!

কিভাবে BTEB admission এর জন্য ছাত্র-ছাত্রী নির্বাচন করা হয়?

ধরুন আপনি এস এস সি তে ৪.৮০ পেয়েছেন। এখন আপনি XYZ Polytechnic এ ABC Technology তে প্রথম পছন্দের তালিকা রেখেছেন। ঐ XYZ Polytechnic এর ABC Technology তে আসন সংখ্যা ৫০ টি। এক্ষেত্রে যদি সেই ABC Technology তে ৪০ টি A+ ছাত্র আবেদন করে এবং ১০ টি ৪.৯ পাওয়া ছাত্র আবেদন করে তাহলে আপনার চান্স হবে না। যদি আপনার কোটা থাকে তাহলে হয়তোবা হতে পারে।

যদি আপনার পছন্দের XYZ পলিটেকনিকের ABC টেকনোলজিতে চান্স না হয় তবে আপনাকে ২য় পছন্দের তালিকা থেকে একই পদ্ধতি অনুসরন করবে।

যেকারনে পলিটেকনিক ও বিভাগ নির্বাচন করার ক্ষেত্রে গুরত্ব দিয়ে ভেবে চিন্তা সিদ্ধান্ত নিতে হবে।

আপনার রেজাল্ট যদি খুব বেশি খারাপ হয় তবে বেশি প্রতিযোগিতামূলক পলিটেকনিক গুলোতে আবেদন না করাই ভালো। নিচের লিংক থেকে নিন ভাল মানের পলিটেকনিকগুলোর তালিকা।

ভাল পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট তালিকা

নিচে আমরা বেশ কিছু পলিটেকনিকের নাম উল্লেখ করে দিচ্ছি যেখানে আপনি আবেদন করতে পারেন। যাদের এস এস সি রেজাল্ট খুব বেশি ভাল নয় (৪.৫ এর কাছাকাছি বা এর নিচে) তারা নিচের পলিটেকনিকগুলোকে পছন্দের তালিকায় রাখতে পারেন।

সিলেট বিভাগ এর মধ্যে হল- দুইটি
  1. হবিগঞ্জ পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট
  2. মৌলভীবাজার পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট
রাজশাহী বিভাগ এর মধ্যে হল- তিনটি
  1. নওগাঁ পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট
  2. সিরাজগঞ্জ পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট
  3. চাঁপাইনবাবগঞ্জ পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট
রংপুর বিভাগ এর মধ্যে হল- দুইটি
  1. কুড়িগ্রাম পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট
  2. ঠাকুরগাঁও পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট
ময়মনসিংহ বিভাগ এর মধ্যে হল- একটি
  1. শেরপুর পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট
বরিশাল বিভাগ এর মধ্যে হল- তিনটি
  1. পটুয়াখালী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট
  2. ভোলা পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট
  3. বরগুনা পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট
ঢাকা বিভাগ এর মধ্যে হল- চারটি
  1. শরীয়তপুর পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট
  2. গোপালগঞ্জ পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট
  3. মুন্সিগঞ্জ পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট
  4. কিশোরগঞ্জ পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট
চট্টগ্রাম বিভাগ এর মধ্যে হল- চারটি
  1. ফেনী পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট
  2. ব্রাহ্মনবাড়ীয়া পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট
  3. কক্সবাজার পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট
  4. লক্ষীপুর পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট
খুলনা বিভাগ এর মধ্যে হল- তিনটি
  1. সাতক্ষীরা পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট
  2. ঝিনাইদহ পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট
  3. মাগুরা পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট

পলিটেকনিকের ভাল ডিপার্ট্মেন্ট / টেকনোলজি তালিকা দেখুন

অনেকের ইচ্ছা ঢাকা পলিটেকনিক বা অন্যান্য ভাল মানের পলিটেকনিকগুলোতে পড়াশুনা, তাদের জন্য খুশির খবর হচ্ছে আপনি চাইলে পলিটেকনিক ট্রান্সফার হয়ে ঢাকাতে আসতে পারবেন। এই ট্রান্সফার এর জন্য কিছু বিষয় মাথায় রাখতে হবে। যে সেমিস্টারে ট্রান্সফার হতে চান সেই সেমিস্টারের রেজাল্ট ভাল হতে হবে, ঐ পলিটেকনিকে ঐ টেকনোলজি বা সাবজেস্ট থাকতে হবে, আর ভাগ্য সহায় হতে হবে 🙂  

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here