পলিটেকনিকে ভর্তির জন্য কিভাবে ভাল টেকনোলজি নির্বাচন করবেন

এস এস সি পরীক্ষা শেষ হবার পর শিক্ষার্থীরা ভর্তির জন্য ছুটাছুটি শুরু করেন। যদিও আবেদন করতে হয় অনলাইনে, তারপরেও শিক্ষার্থীর মাঝে প্রতিষ্ঠান নির্বাচন, চান্স পাওয়া, সাব্জেক্ট পছন্দ করা নিয়ে বেশ কঠিন একটা সময় পার করেন। এস এস সি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হবার পর কেউ জেনারেল শিক্ষার পেছনে ছুটেন আবার কেউ পলিটেকনিক শিক্ষার প্রতি আগ্রহ থাকেন। এদের মাঝখান থেকে যারা পলিটেকনিকে পড়তে চাচ্ছেন তাদের অনেকের প্রশ্ন কিভাবে ভালো সাব্জেক্ট / ডিপার্টমেন্ট সিলেক্ট করবো। আর এই লেখাটিতে তেমন গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে আলোচনা করতে যাচ্ছি।

সাব্জেক্ট / ডিপার্টমেন্ট সিলেক্ট করার জন্য যেসকল প্রশ্ন আমাদের মাথায় আসেঃ

  • কোন সাব্জেক্ট এর চাহিদা বর্তমানে বেশি।
  • কোন বিষয়ে পড়াশুনা করলে চাকরির ক্ষেত্রে সুবিধা হবে।
  • কোন বিষয়ে পড়াশুনা করলে উচ্চশিক্ষা নিতে কোন সমস্যা হবে না।
  • সেই বিষয়ে দেশের বাহিরে চাকরির সুযোক কেমন।

সাব্জেক্ট / ডিপার্টমেন্ট সিলেক্ট করার জন্য যে বিষয়গুলো মাথায় রাখতে হবেঃ

  • প্রথম যে বিষয় টা গুরুত্বপূর্ণ সেটা হচ্ছে আপনার “ইচ্ছা”। যে বিষয় ভালো লাগে তার উপর নির্ভর করে সাব্জেক্ট সিলেক্ট করতে হবে। আর এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ কারন যে বিষয়ে আপনার ভালো লাগে সেই বিষয়টি নিয়ে আপনার সফলতার সম্ভাবনা অনেক বেশি। পছন্দের বিষয় নিয়ে কাজ করতে সবারই ভালো লাগে।
  • যে সাব্জেক্ট পছন্দ করেছেন তার চাহিদা কেমন সেটা জানতে হবে। সেই বিষয়ে সরকারি ও বেসরকারি চাকরির বাজারে চাহিদা কেমন, ভবিষ্যৎ কেমন, উচ্চ শিক্ষার ব্যবস্থা আছে কিনা ইত্যাদি বিষয়ে জানতে হবে। যেমন আপনি যদি দেশে উচ্চশিক্ষা অর্জন করতে চান তবে RAC তে ডিপ্লোমা না করাই ভালো কারন বাংলাদেশে RAC ডিপার্টমেন্টের উপর BSC করা যায় না।
  • পলিটেকনিকে আপনার পরিচিত পড়াশুনা করেন এমন কেউ কিংবা পলিটেকনিক পড়াশুনা শেষ করে চাকরি করছেন এমন কেউ থাকলে তার সাথে কথা বলুন, পরামর্শ নিন। তিনি আপনাকে তার বাস্তব অভিজ্ঞতা থেকে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিতে পারবেন।

সুতারাং একটি ভালো সাব্জেক্ট সিলেক্ট করার জন্য নিজের ইচ্ছা এবং ঐ সাব্জকেট এর চাহিদা বর্তমান এবং ভবিষ্যৎ অবস্থা, উচ্চ শিক্ষার ক্ষেত্রে সুবিধা অসুবিধা ইত্যাদি বিবেচনা করে সাব্জেক্ট সিলেক্ট করতে হবে। নিচে কিছু সাব্জেক্ট দেয়া হলো যেগুলো সরকারি এবং বেসরকারি ক্ষেত্রে চাকরির জন্য ভালো নিয়োগ হয়ে থাকে।

  1. ইলেকট্রিক্যাল টেকনোলজি
  2. মেকানিক্যাল টেকনোলজি
  3. কম্পিউটার টেকনোলজি
  4. সিভিল টেকনোলজি
  5. পাওয়ার টেকনোলজি

এছাড়া অন্যান্য ডিপার্টমেন্টগুলো বেশ ভালো। আমরা উপরে যে ডিপার্টমেন্ট লিস্ট দিয়েছি তা শুধু নিজেরা একান্তভাবে স্টাডি করে যা মূলত বর্তমানে সরকারি জব সার্কুলার ও বেসরকারি জব সার্কুলার উপর নির্ভর করে।

ট্যাগসমূহঃ

পলিটেকনিক ভর্তির যোগ্যতা, ঢাকা পলিটেকনিক ভর্তি, ঢাকা পলিটেকনিকে ভর্তির যোগ্যতা, পলিটেকনিক ভর্তি রেজাল্ট ২০১৯, সরকারি পলিটেকনিকে ভর্তির যোগ্যতা, পলিটেকনিক ভর্তি ২০১৯-২০২০, সরকারি পলিটেকনিক ভর্তি ২০১৯, পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে ভর্তি ২০১৮-২০১৯, পলিটেকনিক সাবজেক্ট, বেসরকারি পলিটেকনিকের তালিকা, ঢাকা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট, পলিটেকনিক পড়ার সুবিধা, বেসরকারি পলিটেকনিকের তালিকা ঢাকা, পলিটেকনিক কি, বেসরকারি পলিটেকনিক খরচ, পলিটেকনিক বই লিস্ট

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here