BTEB Board Challenge Process 2020 | ডিপ্লোমা রেজাল্ট পুনঃনিরীক্ষণ পদ্ধতি

bteb board challange process

BTEB Result Board Challenge 2020– সেমিস্টার রেজাল্ট প্রকাশিত হবার পর থেকে অনেক ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে রেজাল্ট নিয়ে এক ধরনের কনফিউশন দেখা দেয়। অর্থাৎ অনেক ছাত্র-ছাত্রী তাদের প্রত্যাশিত রেজাল্ট পায় না ফলে তারা বোর্ড চ্যালেঞ্জ করার জন্য বা ডিপ্লোমা রেজাল্ট পুনঃনিরীক্ষণ করার জন্য একটি সুযোগ পেয়ে থাকে।

বোর্ড চ্যালেঞ্জ করতে ও তথ্য জানতে নিচের লিংকে ক্লিক করুনঃ

bteb board challenge result

সেমিস্টার ফলাফল প্রকাশিত হবার পর দিন থেকে ৭ থেকে ১০ দিনের মধ্যে ডিপ্লোমা রেজাল্ট পুনঃনিরীক্ষণ এর জন্য আবেদন করতে হয়। এই আবেদন কিভাবে করতে হয় এবং কি কি প্রয়োজন পরে তার সমস্ত কিছু কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের ওয়েবসাইট প্রকাশ করে থাকে। কারিগরি শিক্ষা বোর্ড প্রকাশ করার ডিপ্লোমা রেজাল্ট পুনঃনিরীক্ষণ বিজ্ঞপ্তি দেয়ার সাথে সাথে আমরা এই লেখাটিতে আপডেট করে থাকি।

বোর্ড চ্যালেঞ্জ এর ব্যাপারে কিছু কথাঃ

  • Challenge কেন করবেন – আপনার যদি মনে হয় যে আপনার রেজাল্ট আশানুরূপ হয়নি, আপনি আরো ভালো রেজাল্ট করবেন তার জন্য আপনি আপনার খাতা রিভিউ করাতে চান এবং আপনি এ নিয়ে ১০০% সিওর তবে challenge করবেন . সিওর না হয়ে লাক ট্রাই করার জন্য করে কোনো লাভ তো হবেই না বরং শুধু শুধু টাকা নষ্ট হবে
  • কিভাবে করবেন – সাধারণত রেজাল্ট দেওয়ার ২-৩ দিনের মধ্যেই bteb এর ওয়েবসাইট এ নিয়ে নোটিস দিয়ে দেওয়া হয়। ওয়েবসাইট এ লক্ষ্য রাখবেন আর নোটিস দিলে এই পোস্টে ও পেয়ে যাবেন। নোটিস পাওয়ার পর নিজ নিজ কলেজ এর রেজিস্ট্রেশন শাখায় যোগাযোগ করবেন ওখান থেকে আপনাকে পরের করনীয় বলে দেয়া হবে.
  • কি কি ডকুমেন্ট প্রয়োজন হবে – 1 . গত সেমিস্টার এর admit কার্ডের ফটোকপি 2 .আপনার কলেজের রেজাল্ট শিটের প্রিন্ট কপি যে পেজ এ আপনার রোল আছে 3 .পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক বরাবর আবেদন পত্র , কলেজ প্রিন্সিপাল স্বাক্ষরিত .(আবেদন পত্রের ফরমেট নিচে থেকে ডাউনলোড করুন )
  • কত টাকার প্রয়োজন হবে – প্রতি সাবজেক্ট এর জন্য ৩০০ টাকা ব্যাঙ্ক ড্রাফট করে ড্রাফট এর কাগজ সব ডকুমেন্ট আর সাথে কলেজ এ জমা দিতে হবে আবার কলেজ থেকে আপনার ব্যাঙ্ক ড্রাফট আর টাকা নিয়ে যেতে পারে তখন ড্রাফট তারাই করবে।
  • Challenge এ কি লাভ হয় কিছু – আগেই বলেছি sure না হলে করবেন না এটাতে আপনার সফলতার চান্স ১০০ এ ২% ধরে নিতে পারেন। আর আপনি যদি কনফিডেন্স হোন তবে অবশ্যই challenge করবেন।
  • দালালের ফাদে পা দিবেন না – রেজাল্ট পাবলিশ এর পর থেকে বিভিন্ন গ্রুপে কয়েকজন পোস্ট বা কমেন্ট করতেছে রেজাল্ট চেঞ্জ করতে চাইলে এই নম্বর এ কল দেন ইত্যাদি ইত্যাদি। এদের ফাঁদে পরবেন না , পড়লে আপনার টাকা ও যাবে কাজের কাজ কিছু হবে না। বোর্ড নোটিসে যা করতে বলা হবে সে অনুযায়ী করবেন.

গত সেমিস্টারের উত্তরপত্র পুনঃনিরীক্ষণ নোটিশঃ

BTEB Result Board Challenge 2020 এর জন্য যেসকল বিষয় প্রয়োজন পরবেঃ

প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট

  • পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক বরাবর সাদা কাগজে আবেদন। (আবেদন ফর্মেট ডাউনলোড করুন)
  • ফলাফলের কপি সংযুক্ত করতে হবে (যে পেজে আপনার রোল আছে শুধুমাত্র ঐ পেজ প্রিন্ট করে আপনার নিজের রোল নম্বর অংশটুকু কলম দিয়ে মার্ক করতে হবে)
  • প্রবেশপত্রে ফটোকপি সংযুক্ত করতে হবে (যে পরীক্ষার রেজাল্টের জন্য আবেদন করবেন সেই পরীক্ষার প্রবেশপত্র)

ডকুমেন্ট ক্যাম্পাসে জমা পদ্ধতি

  • উপরোক্ত সবগুলো ডকুমেন্ট ২ সেট করে ফটোকপি করুন এবং এক সেট এক সেট করে স্টাপলার করে নিন। এক সেট নিলেও হবে কিন্তু যেকোন প্রকার ঝামেলা এড়ানোর জন্য ২ সেটের কথা বলা হয়েছে।
  • এবার সমস্ত ডকুমেন্ট আপনার ডিপার্টমেন্ট এর চিফ ইন্সট্রাক্টরের কাছে নিয়ে যান, উনি আবেদন পত্রে স্বাক্ষর করে দিবেন।
  • এরপর আপনার প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষের কাছে থেকে স্বাক্ষর নিতে হবে।

এবার ক্যাম্পাসে আপনার কাজ শেষ। পরবর্তী কাজ বোর্ডে যেয়ে করতে হবে। যদিও বোর্ডের নোটিশ অনুযায়ী উত্তরপত্র পুনঃনিরীক্ষণ এর জন্য ছাত্র-ছাত্রীকে বোর্ডে প্রেরণ না করার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে। এক্ষেত্রে প্রতি সাব্জেক্ট অনুযায়ী ৩০০ টাকা করে ক্যাম্পাসে জমা দিতে হবে। নিচের পয়েন্ট এর কাজগুলো আপনার ক্যাম্পাস করে দিবে। যদি না করে তাহলে নিজেকেই বোর্ডে যেয়ে কাজগুলো করতে হবে।

ডকুমেন্ট কারিগরি শিক্ষা বোর্ডে জমা পদ্ধতি

  • এবার কারিগরি শিক্ষা বোর্ড থেকে টাকা জমা দেয়ার রশিদ সংগ্রহ করতে হবে এবং রশিদের ইনফরমেশন দিয়ে পূরণ করতে হবে।
  • এবার সোনালী ব্যাংকে যেয়ে প্রতি সাব্জেক্ট এর জন্য ৩০০ টাকা করে অর্থাৎ ২ টা সাব্জেক্টের জন্য ৬০০ টাকা ব্যাংক ড্রাফট করতে হবে।
  • টাকা জমা দেয়ার পর রশীদের যে অংশ আপনাকে ফেরত দিবে সে অংশ আবেদনপত্রের সাথে যুক্ত করে জমা দিতে হবে।
  • বোর্ড আবেদন পত্রের রশিদের একটি অংশ আপনাকে দিয়ে দেয়া হবে। এবার পরবর্তী রেজাল্ট এর জন্য অপেক্ষা করতে হবে।

courtesy: Md Asiful Habib

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here