AMIE Bangladesh | ডিপ্লোমাদের জন্য এ.এম.আই.ই ইঞ্জিনিয়ারিং খুঁটিনাটি

AMIE Bangladesh – আমাদের আজকের এই আর্টিকেলটি বিশেষত  সাজানো হয়েছে তদের জন্য যারা এএমআইই (AMIE) তে ভর্তি হওয়ার কথা ভাবছেন। সাধারণত এএমআইই (AMIE) পরিচালিত হয়ে থাকে আইইবি (IEB) এর অধীনে। চলুন জেনে নেয়া যাক এএমআইই (AMIE) সম্পর্কিত প্রয়োজনীয় তথ্যাবলী।

AMIE Bangladesh কিছু কমন প্রশ্ন উত্তর

সর্বপ্রথম জেনে নেয়া যাক AMIE কি?

যদি কেউ  আইইবি (IEB) কর্তৃক প্রদত্ত এসোসিয়েট মেম্বারশিপ পেতে চাই তবে তাকে বাংলাদেশ (আইইবি-IEB) পরিচালিত একটি  পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে এবং সে পরীক্ষাটি হলো AMIE Bangladesh (Associate Membership of the Institution of Engineers)

অনেকেই একটি কমন প্রশ্ন করে থাকে। প্রশ্নটি হচ্ছে, আমরা যদি এএমআইই (AMIE)তে উর্ত্তীণ হয় তবে কি সেটি বিএসসি (BSC)  এর সমমান বলে বিবেচ্য হবে?

এই প্রশ্নের উত্তর হিসেবে আপনার জন্য পজেটিভ কিছু অপেক্ষা করছে কারণ এটি  বিএসসির (BSC) সমমান তবে এর কোর্স সময়সীমা ২ বছর ফলে বি,এস,সির মত দাম পাওয়া যায় না। আর এখানে আপনি কোন প্র্যাক্টিক্যাল শেখার সুযোগ পাবেন না। নিজে পড়ে পরীক্ষা 🙁

এএমআইই (AMIE) তে কি কি বিষয়ে পড়া যায়? 

এএমআইই (AMIE Bangladesh) তে আপনি নিম্নোক্ত বিষয়ে পড়াশোনা করতে পারবেন। বিষয়গুলো হচ্ছেঃ

  • ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক্স
  • সিভিল
  • মেকানিক্যাল এবং
  • কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং

এএমআইই (AMIE) তে ভর্তিচ্ছুকদের প্রয়োজনীয়  যোগ্যতাসমূহ কি কি ?

ভর্তির প্রথম শর্ত হচ্ছে, আপনাকে অবশ্যই এস.এস.সি পরীক্ষায় কৃতকার্য হতে হবে। আপনি যদি কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে ৪ বছর মেয়াদী যে Diploma in Engineering রয়েছে সেখান থেকে CGPA-3.00 বা তার বেশি পয়েন্ট পেয়ে উর্ত্তীণ হয়ে থাকেন সেক্ষেত্রে AMIE তে ভর্তির যোগ্য হিসেবে আপনি বিবেচিত হবেন।AMIE আপনাকে কোন ভর্তি পরীক্ষার সম্মুখীন হতে হবেনা। এখানে সরাসরি ভর্তির সুযোগ রয়েছে।

এএমআইই (AMIE Bangladesh) তে ভর্তির জন্য করনীয়  ধাপগুলো কি কি? 

ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশ (আইইবি-IEB) এর ঢাকা, রাজশাহী, খুলনা কিংবা চট্টগ্রাম- এই তিনটি শাখা রয়েছে। এরমধ্যে আপনাকে  যেকোনো একটি শাখায় ভর্তি হতে হবে। তবে মনে রাখতে হবে যে,

  • আপনি শুধু ফেব্রুয়ারি ও আগস্টে বছরের এই দুটি সময়ে ভর্তি হতে পারবেন। ভর্তির একবছর পর  আপনাকে সর্বপ্রথম পরীক্ষায় অংশগ্রহন করতে হবে। প্রথম পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার পর আপনি প্রতি ৬ মাস অন্তর অন্তর পরীক্ষায় অংশগ্রহন করতে পারবেন। 

BUET, RUET, CUET, KUET এএএমআইই পরীক্ষাসমূহ অনুষ্ঠিত  হওয়ার সময়কাল হচ্ছে এপ্রিল এবং অক্টোবর মাস। ভর্তির সময় প্রয়োজনীয় অর্থের পরিমাণ হচ্ছে ছয় হাজার পাঁচশত টাকা( ৬৫০০/-)

অনেকে জানতে চাই, এএমআইই (AMIE) থেকে পাশ করার পর কি সরকারি / বেসরকারি চাকরি করা যায় কিনা?

এ এম আই ই (AMIE) থেকে পাশ করার পর অবশ্যই আপনি সরকারি এবং বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের চাকরির জন্য পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবেন।

এএমআইই (AMIE) থেকে পাশ করার পর পরবর্তীতে কি কি বিষয়ে  ডিগ্রী অর্জন করা যায়? 

এ.এম.আই.ই ডিগ্রী বাংলাদেশের সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং এর সমমানের একটি ডিগ্রী হবার পরও উচ্চশিক্ষার ক্ষেত্রে একজন এ.এম.আই.ই (বাংলাদেশ) ডিগ্রীপ্রাপ্ত ইঞ্জিনিয়াররা প্রচুর অসুবিধার মুখোমুখি হন, এমএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং তথা মাস্টার্স করার ক্ষেত্রে সিলেবাসের অসামঞ্জস্যতা এবং কম কোর্স ( মাত্র ১৬ টি ) পড়ার জন্য, ৩ বা ৪ বছর মেয়াদী না হয়ে ২-বছর মেয়াদী গ্রাজুয়েশন ডিগ্রী হবার কারনে বাংলাদেশের বেশিরভাগ সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় এমএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং করার সুযোগ দেয় না। তবে কিছু ভার্সিটি সুযোগ দিচ্ছে, সুতারাং বিভিন্ন ভার্সিটির ওয়েবসাইটে খোঁজ রাখতে পারেন।

আপনি যদি  ভারতে M.Tech (মাস্টার্স অফ টেকনোলজি) নিয়ে পড়তে চান তবে সেখানকার প্রায় সকল বিশ্ববিদ্যালয়ে এ সুযোগ পাবেন। এছাড়াও রয়েছে  আমেরিকা,সুইডেন, কানাডা, মালয়েশিয়া, জার্মানি ,, সুইডেন সহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে উচ্চ শিক্ষা লাভের সুযোগ। 

এএমআইই (AMIE) থেকে পাশকারীদের কি  বিসিএস (BCS) পরীক্ষায় অংশগ্রহণে কোন নিষেধাজ্ঞা রয়েছে ?

এএমআইই (AMIE) থেকে পাশ করার পর আপনিও অন্যান্য ডিগ্রীধারীদের মতো  বিসিএস (BCS) পরীক্ষা দিতে পারবেন। এক্ষেত্রে, কোন বাধা-নিষেধ নেই।

এএমআইই (AMIE) তে বছরে কয়টি সেমিস্টার ?

এএমআইই (AMIE Bangladesh) তে বছরে দুটি সেমিস্টার রয়েছে। পরীক্ষাগুলো মার্চ ও সেপটেম্বর মাসে অনুষ্ঠিত হয়৷ ফর্ম ফিলাপ সাধারণত পরীক্ষার দেড় মাস পূর্বে করা হয়ে থাকে।

এএমআইই (AMIE) কয়টি বিষয় সেকশন? 

AMIA এ এবং বি এই দুটি সেকসনে বিভক্ত ৷ সেকশন এ তে ১১টি বিষয়। একইভাবে সেকশন বি রয়েছে ১১টি বিষয়৷ মোট ২২ টি বিষয়। প্রতিটি বিষয়ের পাস করতে হলে অবশ্যই  ৪০ মার্ক পেতে হবে৷ সেকশন এ এর ১১টি বিষয়ে যদি উর্ত্তীণ হতে পারেন তবে আপনি সেকশন বি তে পড়তে পারবেন।

এএমআইই (AMIE) তে কোন ক্লাসের ব্যবস্থা আছে? 

 ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশ (আইইবি-IEB) এএমআইই (AMIE) তে কোন ক্লাসের ব্যবস্থা নেই অর্থাৎ শিক্ষার্থী নিজে নিজে পড়ে পরীক্ষা দিতে হবে। এ কারনে এএমআইই পরীক্ষায় পাশ করা তুলনামূলকভাবে  শিক্ষার্থীদের জন্য চ্যালেঞ্জিং। 

এএমআইই (AMIE) তে পড়ার  খরচ মোট কত? কোচিং কি করা যাবে?

  • ফর্ম ফিলাপের সময় প্রতি বিষয়ের জন্য  ১২০০/- টাকা প্রদান করতে হয়।
  • বছরে একবার সেশন  ফি ১০০০/- টাকা।
  • এক সেমিস্টারে সর্বোচ্চ পরীক্ষা দেয়া যাবে ৪টি বিষষয়। 
  • ভর্তি ফি ৫৫০০/- টাকা তবে আনুসাঙ্গিক ফি সহ ভর্তির সময় ৬৫০০/- টাকা লাগে। 
  • আপনি যদি কোন বিষয়  ফেল না করে থাকেন তাহলে মোটামুটি ৪২ হাজার টাকায় শেষ করতে পারবেন। 

এএমআইই তে ভাল রেজাল্ট করার জন্য অনেকেই বিভিন্ন কোচিং সেন্টারে ভর্তি হয়ে থাকেন। আপনি যদি ভালো ফলাফল করতে চান তবে আইইবি এর অভ্যন্তরে কোচিং করতে পারেন। সেক্ষেত্রে, প্রতি বিষয় এর ফি হবে ২৫০০/- টাকা। আপনি যদি সব বিষয় এ কোচিং করেন তাহলে আপনার মোট খরচ হবে ৫০-৫৫ হাজার টাকা।

এএমআইই (AMIE) থেকে পাশ করার সময়কাল কত ?

যদি আপনি সঠিক সময়ে সকল বিষয়ে পাশ করেন তাহলে ৩ .৫ বছর। 

এএমআইই (AMIE) থেকে পাসের হার কেমন ?

নির্দিষ্ট কোন ক্লাস না থাকার কারণে এএমআইই কমপ্লিট করা বেশ কঠিন হয়ে পড়ে। কোর্সটি অনেক সহজ মনে হলেও কিন্তু বাস্তবে বেশ কঠিন। কারন গত ২০১২ এ পাশের হার ছিল ১৫% এর নিচে। গত অক্টোবর-২০১২ সেমিস্টারে সারা বাংলাদেশ থেকে  এএমআইই কমপ্লিট করতে পেরেছে শিক্ষার্থীর সংখ্যা মাত্র ২৭ জন। 

এএমআইই (AMIE) পাশ হার এতো কম কেন?

কারণ খুঁজতে গেলে অনেক বিষয় সামনে চলে আসে যেমনঃ

  • শিক্ষক ছাড়া, ক্লাস ছাড়া ইংরেজি মিডিয়াম এ পড়াশুনা বেশ কষ্টকর।
  • ভাল মানের বইয়ের অভাব।
  • সুনির্দিষ্ট নির্দেশনা নেই।
  • শিক্ষাক-ছাত্র পারস্পরিক যোগাযোগ এর অভাব ।

এএমআইই (AMIE) তে ভর্তি হওয়ার পূর্বে আপনার কয়েকটি জিনিস জেনে রাখা দরকার

AMIE কি আপনি সরাসরি কোন বিএসসি কোর্স হিসেবে ভাবতে পারবেন না। এটি  বিএসসি সমমান মেম্বারশীপ পরীক্ষা যার পরীক্ষক বুয়েট, সার্টিফিকেট প্রদান করে থাকে IEB। কিন্তু এটি বুয়েট এর অধীভুক্ত নয়। 
প্রতিবছর ৪/৪.৫ হাজার শিক্ষার্থীর মধ্যে পাস করে মাত্র ৭০/৮০ জন। চাকরির পাশাপাশি AMIE তে পাস করা বেশ কষ্টসাধ্য।

Tags:

amie bangladesh, amie university admission, amie bangladesh syllabus, amie bd question, amie university bangladesh, subject list amie bd, reference books amie coaching center in bangladesh, amie admission 2019 in bangladesh

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here